শিরোনাম

পবিত্র শবে বরাত নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচারনা চালানোর অভিযোগে ৮ জনের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা

টাইমস৭১বিডি অনলাইন ডেস্ক,ঢাকা-বাংলাদেশ –
মাওলানা নুরুল হুদা,রাজারবাগ দরবার থেকে –

বাংলাদেশে নিষিদ্ধ পিস টিভির আলোচক কাজী মুফতি ইব্রাহীম, কামালুদ্দীন জাফরী, ইমামুদ্দিন বিন আব্দুল বাছির, আব্দুর রাজ্জাক বিন ইউসুফ, মাহমুদুল হাসান আল মাদানী, ড: মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ মুযাফফর বিন মুহসীন, শহীদুল্লাহ খান মাদানীসহ আটজনের বিরুদ্ধে পবিত্র শবে বরাত নিয়ে মিথ্যা অবমাননাকর বক্তব্য ইউটিউবে প্রচার করার অভিযোগে বাংলাদেশ সাইবার ট্রায়বুনাল, ঢাকায় বিশেষ জজ আদালতে সোমবার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬-এর ৫৭ ধারায় মামলা করা হয়েছে ৷ দৈনিক আল ইহসান ও মাসিক আল বায়্যিনাত পবিত্রকার নির্বাহি সম্পাদক মুফতি আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন।

বাদী তার অভিযোগে বলেন, গত ২৪ এপ্রিল সকালে ইউটিউবে দেখতে পান কাজী মুফতি ইব্রাহীম, কামালুদ্দীন জাফরী, ইমামুদ্দিন বিন আব্দুল বাছির, আব্দুর রাজ্জাক বিন ইউসুফ, মাহমুদুল হাসান আল মাদানী, ড: মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ মুযাফফর বিন মুহসীন, শহীদুল্লাহ খান মাদানীরা পবিত্র শবে বরাতের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে বলে যে, “১৪ ই শাবান বা ১৫ই শাবান কেউ শবে বারাতের নিয়তে সিয়াম পালন করবেন না এই সিয়াম পালন করলে এটিই জাহান্নামে যাবার জন্য যথেষ্ট”এবং “শবে বরাত উপলক্ষে কোন কর্যক্রম করলে ঐ ব্যক্তির তওবার দরজা ঐ দিন থেকেই বন্ধ। গোটা বছর ধরে যত ইবাদত করবে যত বার তওবা করবে কোন তওবা তার কবুল হবে না। কেয়ামত পর্যন্ত তার তওবার দরজা খোলা হবে না। আল্লাহ কাছে ক্ষমা চাইবে কবুল হবে না। কারন হলো সে শবে বরাত পালন করেছে”নাউযুবিল্লাহ!

তাদের শবে বরাত সম্পর্কে বিদ্বেষমূলক মনগড়া, দলিল বিহীন বক্তব্য বাদীর দ্বীনি অনুভুতিতে আঘাত লাগায় তিনি মামলাটি দায়ের করেছেন।

৭৩২ বার পড়া হয়েছে সব মিলিয়ে ৩ বার পড়া হয়েছে আজ

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

indobokep borneowebhosting video bokep indonesia videongentot bokeper entotin videomesum bokepindonesia informasiku videopornoindonesia bigohot
Inline
jQuery(document).ready(function($) { /*$.removeCookie('dont_show', { path: '/' }); */ $('.popup-with-form').magnificPopup({ type: 'inline', preloader: false, }); if( $.cookie('dont_show') != 1) openFancybox(5000); }); function openFancybox(interval) { setTimeout( function() {jQuery('.efbl_popup_trigger').trigger('click'); },interval); }
Inline
jQuery(document).ready(function($) { /*$.removeCookie('dont_show', { path: '/' }); */ $('.popup-with-form').magnificPopup({ type: 'inline', preloader: false, }); if( $.cookie('dont_show') != 1) openFancybox(5000); }); function openFancybox(interval) { setTimeout( function() {jQuery('.efbl_popup_trigger').trigger('click'); },interval); }