Home » যার তার নামের সাথে “রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু” শব্দের প্রয়োগ ঘটানো যায় না – আল্লামা ইমাম হায়াত

যার তার নামের সাথে “রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু” শব্দের প্রয়োগ ঘটানো যায় না – আল্লামা ইমাম হায়াত

প্রতিবেদকঃ নিজস্ব প্রতিনিধি
“কোন কায়েল থেকে যদি এ কথা প্রকাশ পায় যে, মহান আহলে বায়েত রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুমদের উপর খুন-জুলুম-নিপীড়ন-অত্যাচার-নির্যাতনকারীর উপর আল্লাহ সুবহান রাজী বা খুশি তবে সে নিঃসন্দেহে আল্লাহ’র সাথে ব্যাপক ভয়ংকর গোস্তাখী- বেয়াদবি করলো ।”
____________________________________________________-
টাইমস৭১বিডি অনলাইন ডেস্ক,ময়মনসিংহ থেকে –
সম্পাদনায়- মাওলানা শোয়ায়েব হোসাইন মোল্লা ।
গত ৩০ অক্টোবর,২০২০ গুলশান-ঢাকায় বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন- বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের দরবার হলে প্রাণের ঈদে আজম সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন- আল্লামা ইমাম হায়াত
(প্রতিষ্ঠাতা, ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্ট ও প্রবর্তক, ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি রেভুলুশন) ।
* উক্ত মাহফিলে প্রতিষ্ঠাতা, ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্ট ও প্রবর্তক, ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি রেভুলুশন সাইয়্যেদ আল্লামা ইমাম হায়াত “রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু” জুমলার তাফসীরে বলেন –
> জুমলায় “রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু” رضي الله عنه এক মোবারাক শব্দ, আমাদের দ্বীন মিল্লাতের মাঝে এর উর্ধ্বে কোন শব্দ নেই, আল্লাহ সুবহানের নবী রাসূলদের (আলাইহিমুস সালাম) পর “রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু”র মতো উর্ধ্বে কোন শব্দ নেই ।
আল্লাহ সুবহান পরিপূর্ণভাবে রাজী হয়ে যাওয়া, খুশি হয়ে যাওয়া, আল্লাহ সুবহানের কবুলিয়াত পেয়ে যাওয়া এটা মানুষের জন্যে সম্পূর্ণভাবে অসম্ভব একটি বিষয় । আমরা একশতবার শহীদ হয়েও এ দাবী করতে পারবো না যে, আমার উপর আল্লাহ সুবহান পরিপূর্ণভাবে রাজী,খুশি হয়ে আমাকে কবুল করে নিয়েছেন ।
রাব্বুল আলামিন এতো দূরে যে কোন সৃষ্টির পক্ষে কখনোই তা অতিক্রম করা সম্ভব নয়, আবার রাব্বুল আলামিন এতো নিকটে যে এমন নিকটেও আল্লাহ সুবহান ছাড়া কেউ নেই – আর এ নৈকট্যের মূল হচ্ছে এ নৈকট্যের হাকীকত হচ্ছে একমাত্র “রেসালাতে এলাহী”, প্রিয়নবীর কারণে-প্রিয়নবীর রহমতে- প্রিয়নবীকে কেন্দ্র করে- প্রিয় নবীরই কুরবতে-প্রিয়নবীরই শাফায়েতের কারণে-প্রিয়নবীর ঈদে আজমে সেই সীমাহীন অনতিক্রম এ দূরত্বও আল্লাহ সুবহান ওনার আপন রহমতে ঘুচিয়ে দেন ।
আল্লাহ সুবহান তখন নিজে বান্দার কাছে চলে আসেন – আল্লাহ সুবহানের কানুনই হচ্ছে আল্লাহ সুবহান কারো কাছে আসেন না, রেসালাতে এলাহীর নিকটে পৌছলেই কেবল আল্লাহ সুবহান তার বান্দার হয়ে যান ।
যার তার নামের সাথে “রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু” رضي الله عنه শব্দের প্রয়োগ ঘটানো যায় না, আল্লাহ সুবহান কিসে রাজী হবেন কিসে খুশি হবেন সেটা আল্লাহ ও প্রিয়নবীর শাফায়াতের ব্যাপার ।
* সাইয়্যেদ আল্লামা ইমাম হায়াত বলেন –
প্রিয়নবী এবং আহলে বায়েত রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুমদের মাধ্যমে আমাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, আল্লাহ সুবহান কোথায় কোন অবস্থায় রাজী আর খুশি হবেন ।
আল্লাহ সুবহান কুফরের উপর জুলুমের উপরে আহলে রাসূল রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুমদের শানে দুশমনির উপর কখনোও কোন অবস্থাতেই রাজী নন খুশি নন ।
কালামুল্লাহ শরীফে আল্লাহ সুবহান এরশাদ করেন, “إِلَّا الْمَوَدَّةَ فِي الْقُرْبَى” “ইল্লাল মাওয়াদ্দাতা ফিল কুরবা” এখানে “ইল্লা” অর্থাৎ আমি কেবল তোমাদের কাছে চাই আমার আহলে বায়াতের (রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুম) গোলাম হয়ে যাবে-তাদের (রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুম) প্রেমে ফানা হয়ে যাবে-তাদেরকে ভালোবাসবে- তাদেরকে বুকে নিয়েই থাকবে, তাদের কদম মোবারাকে উৎসর্গিত হবে, তারা (রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুম) যেখানে আমি আল্লাহ এবং আমার রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সেখানে ।
* সাইয়্যেদ আল্লামা ইমাম হায়াত বলেন-
যারা আহলে রাসূলদের (রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুম) দুশমন তারাই আল্লাহ ও তার রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দুশমন- তারাই নবী রাসূলদের দুশমন- সকল ওলী আউলিয়ার দুশমন- তারাই জীবনের দুশমন- মানবতার দুশমন- এদের মতো দুশমন আর কিছু হতে পারে না ।
এভাবে যদি কেউ আহলে রাসূলদের (রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহুম) দুশমনদের শানে এ কথা বলে বা এ কথার সত্যায়ন করে যে, আল্লাহ তার উপর রাজী আর খুশি হয়ে গিয়েছে তবে সে অবশ্যই আল্লাহ সুবহানের শানে ব্যাপক ভয়ংকর গোস্তাখী-বেয়াদবি করেছে ।
* সাইয়্যেদ আল্লামা ইমাম হায়াত বলেন –
এভাবে কেউ যদি বলে আল্লাহ সুবহান কুফরের উপরে-জুলুমের উপরে-ব্যভিচারের উপরে-খুনের উপরে আল্লাহ রাজী সে আল্লাহকে অস্বীকার করার চেয়েও ভয়ংকর বেয়াদবিই করলো ।
আল্লাহ সুবহান কখনো কোনভাবেই খেলাফতের বিপরীত মুলুকিয়াত কায়েমকারীর উপর রাজী আর খুশি হতে পারেন না ।
মূল আলোচনার সূত্র লিংক –
______________________________________________________
গত ২৭/১১/২০ গুলশান-ঢাকায়- ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্ট ও ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি রেভুলুশনের উদ্যোগে ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্ট দরবার হল, গুলশান ঢাকায় শানে গাওসেপাক ও জামিয়ে আওলিয়া কেরামের পথ পুনরুদ্ধার সম্মেলন ও সালাতু সালাম মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় –
* উক্ত মাহফিলে প্রতিষ্ঠাতা, ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্ট ও প্রবর্তক, ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি রেভুলুশন সাইয়্যেদ আল্লামা ইমাম হায়াত এ মোবারাক বিষয়ের উপর আরো তাকরীর করতে গিয়ে বলেন –
> মহান মকবুল সাহাবায়েকেরাম (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) যাদের দারাজাত-মাকাম সম্পর্কে আল্লাহ সুবহান ওয়া তায়ালা কোরআনে পাকে ঘোষনা করেছেন।
– আল্লাহ ও তার হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সর্বোচ্চ রহমত তাদের জন্যে নির্ধারিত হয়ে গিয়েছে – আল্লাহ সুবহান যেভাবে কোরআনে পাকে এরশাদ করছেন যে –
وَّرِضْوَانٌ مِنَ اللهِ اَكْبَرُ
“ওয়া রিদওয়ানুম মিনাল্লাহি আকবার” ।
এখানে ‘আকবার’ শব্দটি এসেছে, অর্থাৎ আল্লাহ সুবহানের সন্তুষ্টি সব কিছুর চেয়ে বড়, সব কিছুর উর্ধ্বে, এর চেয়ে বড় সন্তুষ্টি আর কিছু নেই ।
এভাবে- মহান মকবুল সাহাবায়েকেরাম (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) এবং সাহাবী নামধারী মুনাফেক সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয় ।
আমরা মহান মকবুল সাহাবায়েকেরামের (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) কাছে ঋণী, ওনাদের (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) কাছে আমরা ঈমানের জন্যে ঋণী – ওনাদের (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) সীমাহীন ত্যাগ ব্যতিরেকে আমরা আল্লাহ ও তার হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে পেতাম না, ওনাদের ছাড়া (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) আমরা কালেমা দ্বীন কোরআনে পাকের আসল ধারা পেতাম না ।
* মকবুল সাহাবায়েকেরামদের (রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম) বিষয়ে আলোচনায় সাইয়্যেদ আল্লামা ইমাম হায়াত আরো বলেন –
> মহান মকবুল সাহাবায়েকেরাম (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) থেকে এই কালেমা দ্বীন কোরআনে পাকের আসল ধারাকে যখন মুনাফেক সম্প্রদায় পরিপূর্ণভাবে উৎখাত করার চেষ্টা চালালো, যখন কালেমার চেতনার বিপরীত বস্তুবাদী গোত্রবাদী জাতীয়তাবাদী ‘উমাইয়্যা চেতনা’ কায়েম করার চেষ্টা চালালো তখন সাহাবায়েকেরাম জীবন দিয়ে সেটাকে রুখে দেবার প্রয়াস চালালো, মকবুল সাহাবাদের (রাদিআল্লাহু তাআলা আনহুম) প্রথম সেই রুখে দাড়াবার সংগ্রামের নামই ছিলো “জিহাদে সিফফিন” ।
মূল আলোচনার সূত্র লিংক – https://www.facebook.com/WorldSunniMovement/videos/1045694645906447 (ভিডিওটির ‘১৬ মিঃ১০সেঃ’ থেকে ‘২ঘঃ১৩মিঃ১১সেঃ’ পর্যন্ত)
> সম্পাদনায়- মাওলানা শোয়ায়েব হোসাইন মোল্লা,সম্পাদক-টাইমস৭১বিডি/ইনসানিয়াত২৪৷
> ছবি – আর্কাইভ/ফাইল ছবি- টাইমস৭১বিডি
May be an image of 1 person, standing and text that says 'থকে খেলাফতে ইনসানিয়াত times71bd পরম দয়া ও দান'
3,245
People Reached
647
Engagements
Boost Post
<img class="j1lvzwm4" src="data:;base64, ” width=”18″ height=”18″ />
<img class="j1lvzwm4" src="data:;base64, ” width=”18″ height=”18″ />
50
2 Comments
46 Shares
Like

Comment
Share

প্রাসঙ্গিক সংবাদ

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More